সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ০১:১২ পূর্বাহ্ন

রাতেই ভারত থেকে আসবে পেঁয়াজ

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ৩১ মার্চ, ২০২৪
  • ৬৮ Time View

বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু বলেছেন, আজকে রাতেই ভারত থেকে আসা পেঁয়াজের ট্রেন দেশে পৌঁছে যাবে। একদিনের মধ্যেই আমরা এটা ডিলারদের মধ্যে সরবরাহ করব। একদিনের মধ্যেই ঢাকা এবং চট্টগ্রামে টিসিবির মাধ্যমে ৪০ টাকা কেজিতে ওপেন সেল করা হবে। যাতে এই পণ্যটা দ্রুত এবং সহজে সহজলভ্য হয়ে যায়।

রোববার (৩১ মার্চ) সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ‘দ্রব্যমূল্য ও বাজার পরিস্থিতি পর্যালোচনা’ বিষয়ক টাস্কফোর্স সভা শেষে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, যেহেতু পেঁয়াজ পচনশীল পণ্য, সেহেতু প্রথম ট্রেনে ১ হাজার ৬৫০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমাদের এখানে আসবে। এছাড়া বাজারে যথেষ্ট পরিমাণে চিনি আছে। আমাদের যারা উৎপাদক রয়েছে তারাও আমাদের আশ্বস্ত করেছেন।

তিনি বলেন, আমাদের ইমপ্রুভমেন্ট হচ্ছে। আপনাদের সহযোগিতা অব্যাহত থাকলে আমরা সামনে ঈদুল ফিতর এবং পরবর্তী সময়ে বাজার ব্যবস্থাপনা আরও স্বচ্ছ ও উন্নত করতে পারবো।
টিটু বলেন, গত ১ বছরে আন্তর্জাতিক বাজারে চালের দাম ২৫ শতাংশ বাড়লেও আমাদের স্থানীয় বাজারে ২ থেকে ৪ শতাংশের বেশি দাম বাড়েনি। গত মাসে আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত সয়াবিন তেল এবং পামওয়েলের দাম ১১ থেকে ১৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম বৃদ্ধি পেলেও আমাদের আমদানিকারক এবং মিল মালিকদের সহযোগিতায় লিটার ১৬৩ টাকা এবং ১৪৯ টাকায় খোলা বাজারে তেল বিক্রি করতে সমর্থ হয়েছি।

বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, সব জিনিসের দাম কমে গেছে। আমাদের কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক উপস্থিত আছেন। যদিও তিনি ২৯টি পণ্যের যৌক্তিক মূল্য নির্ধারণ করে সেটা প্রকাশ করায় অনেক বিতর্কের শিকার হয়েছেন। আমরা সরু চাল, চিকন চাল এবং মোটা চাল এই পদ্ধতি থেকে বের হয়ে এসে জাতভিত্তিক চালের নাম মিলার পর্যায়ে খরচ, পাইকারি পর্যায়ে বিক্রি এবং খুচরা পর্যায়ে বিক্রির একটি রূপরেখা তৈরি করছি। আমরা কৃষি মন্ত্রণালয়, খাদ্য মন্ত্রণালয় এবং বাণিজ্য মন্ত্রণালয় মিলে এটা কার্যকর করে জানিয়ে দেব। আগামী পয়লা বৈশাখ থেকে এটা কার্যকরী হবে। সবার সম্মিলিত চেষ্টায় আমরা বাজারদর সহনশীল পর্যায়ে রাখতে পেরেছি, আশা করি আগামী ঈদ পর্যন্ত এটা ধরে রাখতে পারবো।

শুধুমাত্র ঢাকা এবং চট্টগ্রামেই কেন ৪০ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি করা হবে? এমন প্রশ্নের উত্তরে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা মনে করি ঢাকা এবং চট্টগ্রামের বাইরে যে পেঁয়াজ উৎপাদন হয় তাতেই চাহিদা অনেকটা পূরণ হয়। ঢাকা এবং চট্টগ্রামের পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে এলেই বাকি জায়গাগুলোতেও অল্প সময়ে পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে আসবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category