রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০১:০৯ পূর্বাহ্ন

সিডনিতে চট্টগ্রাম ক্লাব অস্ট্রেলিয়ার(সি সি এ) মেজবান ২০২৪ অনুষ্ঠিতঃ

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ২৬ মে, ২০২৪
  • ৬৬৩ Time View

টাইটেল স্পনসর রেইন এন্ড হর্ন ইংলেবার্ন এবং এক্সপার্ট ফিনান্স এন্ড একাউন্টিং এর পৃষ্টপোষকতায় চট্টগ্রাম ক্লাব অস্ট্রেলিয়া (সি সি এ) আয়োজন করে মেজবান ২০২৪। সিডনির মিন্টোর ইনডোর স্টেডিয়ামে বিকাল ৫ টায় শুরু হয়ে মেজবান চলে মধ্যরাত পর্যন্ত। মেজবানের বিশেষ আকর্ষণ ছিল চট্টগ্রামের ট্রাডিশনাল মেজবানি গরুর গোস্ত, নলা, ছোলা ডাল, ভেড়ার গোস্ত, মুরগি এবং সাদা ভাত।সাথে ছিল চা এবং অনুষ্ঠানস্থলে ভেজে দেয়া গরম গরম জিলাপি।অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী বাংলাদেশীদের  পাশাপাশি অন্যান্য অঞ্চলের লোক নিয়ে প্রায় পাঁচ হাজার অতিথি স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে অংশগ্রহণ করে এবং বাংলাদেশী কায়দার মেজবানের আপ্যায়ন ছিল নজর কারার মত।

বরাবরের মতো এবারও সিসিএ মেজবানে অংশগ্রহনের জন্য  কোনো প্রবেশ মূল্য রাখা হয়নি, অর্থাৎ সিসিএ মেজবানের জন্য বিনামূল্যে প্রবেশ পত্র বিতরণ করা হয়। তবে অনুষ্ঠানের শৃঙ্খলার জন্য অনলাইনে নিদৃষ্ট সময়ের ভিতর সবার রেজিস্ট্রেশন করা ছিল বাধ্যতামূলক।

পবিত্র কোরান থেকে তেলওয়াত দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়। তারপর সমবেত কণ্ঠে বাংলাদেশ এবং অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। সিসিএ সেক্রেটারি সাদীয়া হক এর প্রাণবন্ত সঞ্চলনায় এবং স্থানীয় বাংলাদেশী শিল্পীদের পরিবেশনায় মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ছিল উপভোগ্য।

উক্ত অনুষ্ঠানে কমিউনিটির গন্যমান্য ও বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কনস্যূলেট জেনারেল সিডনির মোঃ শাখাওয়াত হোসেন মহোদয়।তিনি শুভেচ্ছা বক্তব্যে বলেন, “তিনি অভিভুত এত বড় আয়োজনে উপস্থিত হতে পেরে।এমন অনুষ্ঠান কমিউনিটির সকল বাংলাদেশীদের পারস্পরিক সম্পর্ক উন্নত হবে বলেও আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।এছাড়াও তিনি উপস্থিত সকলকে বৈধ পথে বাংলাদেশে টাকা পাঠানো বিষয়ে অনুরোধ করেন।


অনুষ্ঠানে ডেপুটি মেয়র মোঃ খলিল ইব্রাহীম মাসুদ, কাউন্সিলর মাসুদ চৌধুরী ও কাউন্সিলর সাবরীন ফারুকীও উপস্থিত ছিলেন।

সিসিএ সভাপতি ডঃ শেখ সালাউদ্দিন তার স্বাগত বক্তব্যে সকলকে অভিনন্দন জানান। তিনি অনুষ্ঠানে আগত বিশেষ অথিতীদের পরিচয় করিয়ে দেন এবং সিসিএ বিভিন্ন জনসেবা মূলক কর্মকান্ড তুলে ধরেন।

সিসিএ মেম্বারদের পক্ষে সৈয়দ আকরাম উল্লাহ অর্থনৈতিক বিবরণী উপস্থাপন করেন এবং মেইন স্পনসরদের পরিচয় করিয়ে দেন। রেইন এন্ড হর্ন ইংলেবার্ন এবং এক্সপার্ট ফিনান্স এন্ড একাউন্টিং ছাড়া অন্যান্য স্পনসরদের মধ্যে নিরালা হোল্ডিংস, ফার্ম ফিনানজ, ইনভেস ট্যাক্স, গুজমান ইঁ গোমেজ, ই এস ওয়াই গ্লোবাল, চিলি বেসিল থাই রেস্টুরেন্ট, মেজবানি রেস্টুরেন্ট এন্ড ক্যাটারিং এবং সৈয়দ ব্রাদার্স সুপার শপ ছিল অন্যতম।

ফয়েজ মোহাম্মদএর সম্পদনায় মেজবান উপলক্ষে এক আকর্ষণীয় ম্যাগাজিন প্রকাশ করা হয়। অস্ট্রেলিয়া প্রবাসীদের পাশাপাশি নতুন প্রজন্মের শিশু কিশোরদের লেখা গল্প, কবিতা এবং চিত্রাঙ্কন প্রকাশিত করা হয়।

সিডনিতে একসাথে এতো লোকের খাবার রান্না করার মতো দুঃসাহসিক কাজটি সম্পন্ন করেন মেজবানি রেস্টুরেন্টের স্বত্তাধিকারী এবং প্রধান শেফ মাসুম রানা এবং তার দল।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category